সাভারে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক কিশোরীরকে একাধিক বার ধ’র্ষণের অভিযোগে সাজ্জাদ হোসেন (২১) নামে এক যুবককে আ’টক করেছে পু’লিশ। শুক্রবার সকালে সাভার মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) অপূর্ব দাস ধ’র্ষণের অভিযোগ ও আটকে নিশ্চিত করেন।

গ্রে’প্তার সাজ্জাদ হোসেন সজল সাভার পৌর এলাকার ব্যাংক কলোনী মহল্লার বাদশা মিয়ার ছেলে। সে এলাকায় মুদি দোকান করে মে’য়েদের সাথে প্রেম করে এবং পরবর্তীতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তাদেরকে ধ’র্ষণ করে বলে জানিয়েছে পু’লিশ।

থানা পু’লিশ জানায়, গত পাঁচ মাস ধরে ব্যাংক কলোনী এলাকায় এক না’রীকে প্রলোভন দেখিয়ে একটি বাসায় স্ত্রী পরিচয়ে রেখে নিয়মিত ধ’র্ষণ করে আসছিল এলাকার মুদি দোকানদার সাজ্জাদ হোসেন সজল।

একপর্যায়ে গত দুই মাস আগে ওই না’রী অ’ন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে সজলকে বিয়ের জন্য চা’প দেয়। সজল ক্ষি’প্ত হয়ে ওই না’রীকে বেধরক মা’রধর করে এবং বি’ষয়টি কাউকে জানালে তাকে হ’ত্যা করে লা’শ গুম করারও হু’মকি দেয়। একইসাথে ওই না’রীর মাথার চুল কে’টে দিয়ে দিয়ে তাকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নি’র্যাতন করে তাড়িয়ে দেয়।

পরে ওই না’রী শুক্রবার রাতে বি’ষয়টি জানিয়ে সাভার মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন। পু’লিশ অভিযোগটি না’রী ও শি’শু নি’র্যাতন দ’মন আইনে মা’মলা হিসেবে নথিভূক্ত করে এবং শনিবার সকালে অ’ভিযান পরিচালনা করে ধ’র্ষক সজলকে তার নিজ বাসা থেকে গ্রে’প্তার করে।

এ বি’ষয়ে সাভার মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) অপূর্ব দাস জানান, ওই কিশোরীর অভিযোগের ভিত্তিতে কথিত প্রে’মিককে আ’টক করা হয়েছে। ওই কিশোরীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি)’তে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here