অস্ট্রেলিয়া কর্মকর্তারা ভিক্টোরিয়া রাজ্যে একটি নতুন ক’রোনাভা’ইরাসে প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। এবং এর অভিযোগ কোয়ারেন্টিনের নিয়ম যথাযথ মেনে চলছে না তাঁরা। সেই স’ঙ্গে বেড়েই চলেছে যৌ’নসম্প’র্ক। অস্ট্রেলিয়ার বেশির ভাগ মানুষ লকডাউনের সুযোগ নিয়ে যৌ’নতায় সময় ব্যয় করছেন। খবর সিএনএন

মে মাসের শেষে থেকে হঠাৎ করেই বাড়তে শুরু করেছে অস্ট্রেলিয়ার সং’ক্র’মণ। এর কারণ হিসেবে কিছু বি’ষয় সামনে এসেছে। প্রথমত হোটেলগুলো সঠিক নিয়ম মেনে চলেনি। অনেকেই ১৪ দিনের বা’ধ্যতামূ’লক কোয়ারেন্টিন মানেনি।

মেলবোর্নের একটি খ্যাতনামা হোটেল থেকে একদিনে ৩১ জনের ক’রোনা পজেটিভ এসেছে। সেই সাথে আরো দুইটি হোটেল থেকে বেশ কয়েকজন পজিটিভ এসেছে। বলছেন, সময় কা’টাতে যৌ’ন কাজে নিজেদের ব্যস্ত রেখেছিলেন সবাই। কয়েকটা হোটেলও এ বি’ষয়ে সাহায্য করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, এই ঘ’টনায় দোষী প্রমাণিত হলে উপযুক্ত শা’স্তি দেওয়া হবে। মেলবোর্নে নতুন করে আবার লকডাউন শুরু করা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত সেখানে ৭৩০ জন ক’রোনা আ’ক্রান্ত। আগামী দুসপ্তাহের জন্য বাইরের দেশ থেকে কেউ অস্ট্রেলিয়ায় প্রবেশ করতে পারবেন না।

এছাড়াও অস্ট্রেলিয়ার অন্য অঞ্চলে বসবাসকারী কেউ মেলবোর্নে আসতে চাইলে অনুমতি লাগবে। এখন পর্যন্ত বাইরে থেকে ৬০ হাজার অস্ট্রেলিয়ার বাসিন্দা দেশে ফিরেছেন এবং তাদের কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here