রাত নেমে আসতেই চলছিল বাল্য বিয়ের আয়োজন। ঠিক তখনই বিয়েবাড়িতে অ’ভিযান চা’লায় ইউএনও। ইউএনওর উপস্থিতি টের পেয়ে বাসরঘর থেকে দৌঁড়ে পা’লিয়ে যান নবদম্পতি।

একই স’ঙ্গে বাড়ি ছাড়া বিয়েবাড়ির লোকজন। নাটোরের গুরুদাসপুর উপজে’লার নাজিরপুর ইউনিয়নের মামুতপুর গ্রামে এমন ঘ’টনা ঘটেছে।

শনিবার রাত ৮টার দিকে ওই এলাকায় বাল্যবিয়ে বন্ধে অ’ভিযান পরিচালনা করেন গুরুদাসপুর উপজে’লা নির্বাহী অফিসার মো. তমাল হোসেন।

ইউএনও তমাল হোসেন জানান, মামুতপুর গ্রামের মো. তছের স’রকারের বাড়িতে তার ছেলে ইনামুল স’রকারের (২৫) স’ঙ্গে পার্শ্ববর্তী এলাকা দু’ধগাড়ী গ্রামের মো. আনোয়ার হোসেনের অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া মে’য়ে নূপুরের (১৫) বাল্যবিবাহের খবর পাওয়ার পর ঘ’টনাস্থলে যাওয়া হয়। বিয়েবাড়ির লোকজন আমাদের উপস্থিতি বুঝতে পেরে বর-কনেসহ সবাই দৌঁড়ে পা’লিয়ে যায়।

তিনি আরো জানান, ঘ’টনাস্থলেই বিয়ে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। পরবর্তীতে উভ’য়পক্ষের বি’রুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বাল্যবিয়ে বন্ধে উপজে’লা প্রশাসনের অ’ভিযান অব্যাহত থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here