অনেক সময় স্বাভাবিকের চেয়ে ফোন চার্জ হতে বেশি সময় লাগে। কী কারণে ধীর গতিতে ফোন চার্জ হয় তা অনেকেই বুঝতে পারেন না। আবার অনেক সময় রাতভর ফোন চার্জে রেখেও শতভাগ না হওয়ার ‘য’ন্ত্রণায়’ ভোগেন। আবার কারো কারো ফোনে এক ঘণ্টার ভে’তরেই চার্জ হয়।

কেন দেরিতে ফোন চার্জ হয় তার কয়েকটি কারণ হলো-১. খা’রাপ ক্যাবল: ফোনে ধীরে চার্জ হলে প্রথম কাজ হবে ক্যাবল পরীক্ষা করে দেখা। অনেকে এক ক্যাবল সব ডিভাইসে ব্যবহার করেন। এটি ঠিক নয়। এভাবে অতিরিক্ত ব্যবহারের ফলে ক্যাবলের ভে’তরে ছোট যে কা’টা থাকে, সেগুলো বেঁকে যায়। তাই চার্জ ঠিকমতো না হলে ক্যাবল পাল্টে ফেলুন।

চার্জার বা ক্যাবল পাল্টানোর জন্য দোকানে গিয়ে অপেক্ষা করতে হবে। যেটি কিনছেন সেটি দোকানে বসেই পরীক্ষা করে দেখবেন, দ্রু’ত চার্জ নিচ্ছে কি না। কয়েকটা পরীক্ষা করলে আপনার ফোনের জন্য সবচেয়ে কার্যকরীটি পেয়ে যাবেন।

২. দু’র্বল পাওয়ার সোর্স: পিসির মাধ্যমে ফোন চার্জ দিলে খুব ধীরে চার্জ হবে। তাই এটি নিয়ে হা-হুতাশ করার কিছু নেই। চার্জের জন্য ওয়্যারলেস চার্জার ব্যবহার না করাই ভালো। একটি ডিভাইসের জন্য একটি চার্জার রাখবেন। এরপরেও যদি চার্জ ধীরে হয়, তাহলে আপনার বাড়ির বিদ্যুৎ ব্যবস্থায় (হোম-ওয়ারিং) সমস্যা থাকতে পারে।

৩. ব্যাটারির সমস্যা: চার্জার কিংবা ক্যাবল ঠিক থাকলেও অনেক সময় ব্যাটারির সমস্যার কারণে চার্জ ধীর গতিতে হতে পারে। তবে এক্ষেত্রে চার্জ দ্রু’ত ফুরিয়ে যাওয়া, স্মার্টফোন গরম হওয়া কিংবা অস্বাভাবিক হারে চার্জের পরিমাণ বাড়া-কমার মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে। এসব ক্ষেত্রে ব্যাটারি পরিবর্তন করলে সমস্যার সমাধান হয়।

৪. শ’ত্রু যখন নিজে: সারাদিন ফেইসবুক চালান ভালো কথা। তাই বলে চার্জে দিয়েও চালাতে হবে? সারা দিন গেম খেলেন ভালো কথা। তাই বলে চার্জে দিয়েও খেলতে হবে? আপনার এসব অভ্যাসের কারণে ফোন ধীরে ধীরে চার্জ নেয়। চার্জের সময় ফোনের ডিসপ্লে অন থাকলেও চার্জের গতি কমে যায়। বেশি রেজ্যুলেশনে ইউটিউব দেখলেও এমনটি হয়। ফোনে দ্রু’ত চার্জ পেতে হলে ডিভাইসটিকে বিশ্রাম দিতে হবে।

৫. চার্জিং পোর্টে সমস্যা: অনেক সময় চার্জিং পোর্টে সমস্যা হতে পারে। এক্ষেত্রে চার্জার ঠিকভাবে সংযোগ না পাওয়ার কারণে চার্জিং প্রক্রিয়া ব্যাহত হয়। এ কারণে ফোন ধীর গতিতে চার্জ হলে অনুমোদিত সার্ভিস সেন্টার থেকে চার্জিং পোর্ট সারিয়ে নিতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here