শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে এক গৃহবধূকে গণধ’র্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘ’টনাটি ঘটেছে উপজলার কাংশা ইউনিয়নের বাকাকুড়া গ্রামে। ধ’র্ষণের শি’কার ওই গৃহবধু (২৭) শেরপর সদর উপজে’লার মোবারকপুর গ্রামের দুই স’ন্তানের জননী।

শনিবার (২৭ জুন) সকালে ওই গৃহবধূ শ্রীবর্দী উপজে’লার পশ্চিম ঝিনিয়া গ্রামের খালাত ভাই মাসুদের সাথে গজনী অবকাশ কেন্দ্রে ভ্রমণের জন্য রওনা দেন। যখন বাকাকুড়া গুচ্ছগ্রাম এলাকায় পৌঁছান তখন স্থানীয় কতিপয় ব’খাটে ওই গৃহবধূকে ইজিবাইক থেকে নামিয়ে নেয়।

পরে জঙ্গলে নিয়ে তাকে উপর্যুপরি ধ’র্ষণ করে। এ খবর পেয়ে ঘ’টনার পরপরই থানা পু’লিশ অ’ভিযান চালায় এবং ধ’র্ষিতাকে উ’দ্ধার ও দুই ধ’র্ষককে গ্রে’ফতার করেন।

গ্রে’ফতারকৃতরা হচ্ছে, ঝিনাইগাতী উপজে’লার বাঁকাকুড়া গ্রামের চাঁদ মিয়ার ছেলে খোকন মিয়া (২৬) ও শহীদ মিয়ার ছেলে রাসেল মিয়া (২০)।

এদিকে, শনিবার বিকালেই শেরপুরের পু’লিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম পিপিএম, সহকারী পু’লিশ সুপার শেরপুর সদর সার্কেল আমিনুল ইসলাম, সিনিয়র সহকারী পু’লিশ সুপার নালিতাবাড়ী সার্কেল জাহাঙ্গীর আলম ঘ’টনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এ ব্যাপারে ঝিনাইগাতী থানার ভারপ্রা’প্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বকর ছিদ্দিক ঘ’টনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অপর আ’সামিদের গ্রে’ফতারে পু’লিশি তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

ধ’র্ষিতা গৃহবধুকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য শেরপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে এবং এ নিয়ে থানায় মা’মলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান এই পু’লিশ কর্মকর্তা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here