বেশ কিছুদিন ধরে পাশের বাড়ির ভাবিকে কুপ্রস্তাব দিচ্ছিল মুক্তার হোসেন। গৃহবধূর স্বা’মী কাজের সুবাদে বাইরে থাকলে মুক্তার প্রায়ই তার বাড়িতে আসতো।

সম্প্রতি ভাত খাওয়ার কথা বলে ঘরে ঢোকে মুক্তার। এ সময় রান্নাঘরে একা পেয়ে তাকে ধ’র্ষণ করে সে। ঠিক সেই মুহূর্তেই ঘরে ঢুকল গৃহবধূর স্বা’মী। এ ঘ’টনা এলাকায় বেশ চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

২১ নভেম্বর ধ’র্ষণের অভিযোগ এনে নাটোরের বাগাতিপাড়া থানায় মা’মলা করেন ভু’ক্তভোগী গৃহবধূ। মা’মলার পরদিন অ’ভিযান চা’লিয়ে মুক্তার হোসেনকে গ্রে’ফতার করে পু’লিশ।

এজাহার সূত্রে জানা গেছে, মাঝে মধ্যে ওই গৃহবধূর বাড়িতে যাতায়াত করতো প্রতিবেশী মুক্তার হোসেন। ১৮ নভেম্বর সকালের দিকে গৃহবধূর স্বা’মী রাজমিস্ত্রির কাজে চলে যান।

পরে সকাল ১১টার দিকে রান্না করছিলেন গৃহবধূ। এ সময় গৃহবধূর বাড়িতে আসেন মুক্তার। কথা বলার একপর্যায়ে ভাত খাওয়ার ইচ্ছে পোষণ করে সে। এরপর পানি খেতে চাইলে গৃহবধূ পানি আনতে ঘরে ঢোকেন।

এ সুযোগে গৃহবধূর ঘরে ঢুকে পেছন থেকে জড়িয়ে ধরে ধ’স্তাধ’স্তির একপর্যায়ে ধ’র্ষণ করে মুক্তার। এমন সময় ঘরে ঢুকে স্ত্রী’কে ধর্ষিত হতে দেখে চি’ৎকার করে প্রতিবেশীদের ডাকতে থাকেন গৃহবধূর স্বা’মী। পরে মুক্তার পা’লিয়ে যায়।

বাগাতিপাড়া থানার ওসি নাজমুল হক বলেন, রোববার সকালে ভু’ক্তভোগী গৃহবধূকে নাটোর আধুনিক হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। এছাড়া গ্রে’ফতার মুক্তারকে কা’রাগারে পাঠানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here