ময়মনসিংহের ত্রিশালে ইমামকে লা’ঞ্ছিত করায় যুবলীগ নেতা শফিকুল ইসলাম শফিকে সমাজ থেকে একঘরে করে সমাজচ্যুত করা হয়েছে। ঘ’টনাটি ঘটেছে শুক্রবার দুপুরে উপজে’লার সম্মুখ বৈলর গ্রামে।

স্থানীয়রা জানান, সম্মুখ বৈলর জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা নিজাম উদ্দিন মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় ১২ বছর আগে জমি ক্রয় করেন। সেই জমি বৈলর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি শফিকুল ইসলাম শফি বছরখানেক যাবত দ’খলের চেষ্টা করে আসছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

ঘ’টনার দিন শুক্রবার জুমার নামাজের আগে মসজিদের সামনে শফি তার লোকজন নিয়ে ইমাম সাহেবের স’ঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়ায়। একপর্যায়ে ইমামকে শা’রীরিকভাবে লা’ঞ্ছিত করে।

এ ঘ’টনায় ক্ষু’ব্ধ হয়ে উপস্থিত মুসল্লি ও স্থানীয় সাধারণ মানুষ শফিকে আ’টক করে একটি দোকানে রেখে নামাজ পড়তে যান। পরে শফির পরিবারের লোকজন সামাজিকভাবে বিচারের আশ্বাস দিয়ে ছাড়িয়ে নিয়ে যান।

ওই দিন আসর নামাজের পর স্থানীয় এলাকাবাসী ও মুসল্লিরা এ ঘ’টনার প্র’তিবাদে প্র’তিবাদ সভায় শফিকে একঘরে করে সমাজচ্যুত করেন।

প্র’তিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন- বৈলর ইউনিয়নের ভারপ্রা’প্ত চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ, মসজিদ কমিটির সভাপতি আশরাফ আলী, সাধারণ সম্পাদক ইউনুস আলী মাস্টার, ইউনিয়ন কৃষক লীগের যুগ্ম আহবায়ক কামরুজ্জামান কাজল, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি জুলফিকার আলী, সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা প্রমুখ।

মসজিদের ইমাম মাওলানা নিজাম উদ্দিন বলেন, শফি দলীয় প্রভাব খাটিয়ে দীর্ঘ দিন যাবত আমার ক্রয় করা জমি দ’খল করার চেষ্টা করছেন।

ঘ’টনার দিন কোনো কারণ ছাড়াই তিনি তার লোকজন নিয়ে আমাকে শা’রীরিকভাবে লা’ঞ্ছিত করেন। তাই সমাজের লোকজন তাকে একঘরে করে সমাজচ্যুত করেছেন।

এ বি’ষয়ে শফিকুল ইসলাম শফি বলেন, আমাকে সমাজচ্যুত করেনি। আমি রাজনীতি করি; এ বছর এই ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান নির্বাচন করব। রাজনৈতিকভাবে হেয় করার জন্য আমার প্রতিপক্ষরা এ ধরনের অ’পপ্রচার চালাচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here