২০ দিন হয়েছে শামীম মিমের বিয়ে। কিন্তু এ ক’দিনে শামীম যেতে পারেনি মিমের কাছে।নানাভাবে চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয় শামীম। একবার কাছে যেতে পারলেই মিম ভু’লেযাবে তার প্রে’মিককে। আর শামীম হয়ে উঠবে তার স্বা’মী।

দু’জনে সু’খের সংসার গড়বে । বিয়ের পর ২০ দিন চেষ্টা করেও যখন মিমের কাছাকাছি যেতে পারেনি তখনই সি’দ্ধান্ত নেয় মিমকে শেষ করার।

আরও পড়ুন : করোনাভাইরাসের কারণে এখন ঘরবন্দি সবাই। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে যাওয়াও পুরোপুরি নিষেধ। তাতে নিম্ন আয়ের মানুষের মধ্যে বাড়ছে হতাশা। গত কয়েক দিনের পরিসংখ্যান বলছে এই করোনার কারণে পারিবারিক কলহও বেড়ে চলছে।

যদিও এমন ঘটনা বাংলাদেশে নতুন নয়। তবে এই সংকটে সেটা বাড়ছে পাল্লা দিয়ে। বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী পূর্ণিমা বোধ হয় তারই একটা উদাহরণ টানলেন। নিজের ইনস্টাগ্রামে তারই একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন তিনি।

ভিডিওতে দেখা যায় পূর্ণিমা অঝোরে কাঁদছেন। তার চোখে মুখে রাজ্যের হতাশা। এসব দেখে কেউ একজন তার কাছে জানতে চান এভাবে, কি গো তোর জামাই তোরে এমনে মারলে কেরে? উত্তরে পূর্ণিমা বলেন, কইছি না আমার জামাই দুইটা সিম ব্যবহার করে।

আমি একটা সিম নাম্বার সেভ করছিলাম স্বামী ওয়ান, আরেকটা সিম নাম্বার সেভ করছিলাম স্বামী টু দিয়ে। শালা না বুইঝা আমারে এই মাইরডা দিসি।

এরপরই ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়ে নেট দুনিয়ায়। বিশেষ করে ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। আর এ নিয়ে পক্ষে বিপক্ষে শুরু হয় নানা যুক্তি তর্ক। কেউ তার চোখে দেখা কোনো একটা ঘটনার কথা বর্ণনা করছেন। কেউ আবার বলছেন ভিন্ন কথা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here