সকালে ঘুম ভাঙার পর ছেলেদের লি’ঙ্গ দাঁড়িয়ে থাকে। সম্প্রতি এর কারণ বিশ্লেষণ করেছেন গবেষকরা। পুরু’ষেরা ভোরে যৌ’নতায় আ’গ্রহী হলেও না’রী এ সময় যৌ’নতায় সেভাবে আ’গ্রহী থাকে না। এর মূ’ল কারণ টেস্টোস্টেরন হরমোন বলে মনে করছেন তারা। এক প্রতিবেদনে বি’ষয়টি জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

সকালে ঘুম ভাঙার পর ছেলেদের লি’ঙ্গ দাঁড়িয়ে থাকে কারণরাতে যখন না’রী ভালোবাসার পরিপূর্ণ স্বাদ নিতে চান তখন পুরু’ষ ঘুমে ঢুলতে থাকে। গবেষকরা জানিয়েছেন, এর কারণ হলো না’রী ও পুরু’ষের হরমোনের পার্থক্য। আর এ পার্থক্যের কারণেই উভ’য়ের দে’হঘড়ি একত্রে চলে না।

গবেষকরা এক্ষেত্রে কয়েকটি সময়ের বর্ণনা করেছেন, যে সময়ে না’রী-পুরু’ষের হরমোনের পার্থক্য লক্ষ্যণীয়।ভোর ৫টায় পুরু’ষের টেস্টোস্টেরন (Testosterone) হরমোন সর্বাধিক থাকে। দিনের অন্য সময়ের তুলনায় এ মাত্রা ২৫ থেকে ৫০ শতাংশ বেশি। এ সময় না’রীও টেস্টোস্টেরন হরমোন উৎপাদন করে। তবে তা অতি সামান্য মাত্রায়।

সকাল হরমোনের মাত্রা কমে না। ঘুম যত লম্বা হয় হরমোনটির প্রভাবও তত বেশি হয়। আমেরিকান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (American Medical Association) জানিয়েছে, পাঁচ

ঘণ্টার বেশি ঘুম পুরু’ষের হরমোনটির মাত্রা ১৫ শতাংশ বাড়িয়ে দেয়।সকাল সাতটায় যদি কোনো পুরু’ষ ঘুম থেকে উঠে তখন তার দে’হে যতখানি টেস্টোস্টেরন হরমোনের
মাত্রা থাকে সর্বাধিক।

কিন্তু একজন না’রীর সে সময় সবচেয়ে কম থাকে।অন্যদিকে দিন শেষে পুরু’ষের এ হরমোনটির মাত্রা সবচেয়ে কমে যায় আর না’রীর সবচেয়ে বেশি থাকে। আর এ কারণেই সকালে ঘুম ভাঙার পর ছেলেদের লি’ঙ্গ দাঁড়িয়ে থাকে।

মে’য়েরা মি’ল’নের চেয়েও বেশি পছন্দ করে এ’ই বি’ষয়গুলো
প্রেম-ভালোবাসার ক্ষেত্রে পুরু’ষদের কাছে যৌ’ন’তা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বি’ষয়। কিন্তু এমন কিছু বি’ষয় আছে যা না’রীদের কাছে যৌ’নসু’খের চাইতেও অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। কেবল যৌ’ন সু’খ নয়, নিজেদের একান্ত সম্প’র্কে পছন্দের পুরু’ষের কাছ থেকে এই বি’ষয়গুলোও আশা করেন না’রীরা।

কী করলে আপনার স’ঙ্গিনী খুশি হবেন, তারই কিছু সহজপাঠ এখানে দেয়া হলো। ব্যক্তি বিশেষে এই চা’হিদার রকমফের হলেও দেখা গিয়েছে কমবেশি এই ব্যবহারই কামনা করেন অধিকাংশ না’রী।০১. যার মধ্যে প্রথমেই রয়েছে আলতো চু’ম্বন। জো’র করে নয়, দুপক্ষের সম্মতিতেই এই চু’ম্বন হওয়া বাঞ্ছনীয়।

০২. দ্বিতীয়ত, স্পর্শ। পোশাকি ভাষায় যাকে বলে গুড টাচ।০৩. গভীর আ’লি’ঙ্গ’ন। যাতে থাকবে সারাজীবন পাশে থাকার ইঙ্গিত। এই বি’ষয়গু’লি না’রীদের কাছে যৌ’নতার থেকেও অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ।০৪. যৌ’ন মি’লনের পর গভীর আ’লি’ঙ্গনে প’রস্পরকে জড়িয়ে ঘুমোনোটাও অধিকাংশ না’রীই পছন্দ করেন।

০৫. একান্ত মুহূর্তে আবেগঘন প্রশংসা না’রীদের খুবই প্রিয়।০৬. পাশাপাশি হাত ধরে হাঁটা, উপহার, বিশেষ মুহূর্তে “ভালোবাসি” বলা, মজার খু’নসুটি, মজার কোন ইঙ্গিত ইত্যাদি ব্যাপারগুলো না’রীদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here