মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজে’লার নতুনহাট বালিয়াচর এলাকায় শি’শুকে ধ’র্ষণের পর পাঁচ টাকা দিয়ে বিদায় করেছেন জামিল হোসেন নামের ৪০ বছরের এক প্রতিবেশী। শি’শুটি মানিকগঞ্জ জে’লা সদর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে বলে জানিয়েছেন সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক।

পু’লিশ জানায়, শনিবার সকালে প্রতিবেশী জামিল হোসেন শি’শুটিকে তাদের বাড়িতে ফুসলিয়ে নিয়ে যায়। তারপর তাকে ধ’র্ষণ করে পাঁচ টাকা একটি নোট দিয়ে বিদায় করে দেয়।

হরিরামপুর থানার ভারপ্রা’প্ত কর্মকর্তা (ত’দন্ত) মোশারফ হোসেন জানিয়েছেন, এ ঘ’টনায় থানায় একটি মা’মলা দা’য়ের করা হয়েছে। এ ছাড়া আ’সামিকে গ্রে’ফতারের চেষ্টা চলছে।

শি’শুটির নানি জানিয়েছেন, শনিবার সকালে প্রতিবেশী জামির হোসেন শি’শুটিকে নিয়ে ধ’র্ষণ করে অ’সুস্থ অবস্থায় পাঁচ টাকা দিয়ে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। শি’শুটি বাড়িতে এসে কা’ন্নাকাটি করে আরও অ’সুস্থ হয়ে পড়ে।

প্রথমে সম্মানের ভ’য়ে বি’ষয়টি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলেও শি’শুটির জীবন বাঁচাতে মঙ্গলবার দুপুরে মানিকগঞ্জ জে’লা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আর এ ঘ’টনার পর প্রতিবেশী জামির হোসেন (৪০) এলাকা ছেড়ে পা’লিয়েছেন।

সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আরশাদ উল্লাহ জানান, শি’শুটিকে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তার অবস্থা অনেকটা এখন ভালো।

আরও পড়ুন= ‘ধ’র্ষণের সর্বোচ্চ শা’স্তি বাড়িয়ে মৃ’ত্যুদ’ণ্ডের বি’ষয়টি বিবেচনা করছে স’রকার’

ধ’র্ষণের শা’স্তি যাবজ্জীবন থেকে বাড়িয়ে মৃ’ত্যুদ’ণ্ড করতে স’রকার সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করছে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। বুধবার (০৭ অক্টোবর) সকালে বনানীতে সময় সংবাদকে এ কথা জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, জনগণের দাবি বিবেচনা না করে উপায় নেই। বি’ষয়টিকে ইতিবাচক দাবি করে আইনজীবীরা বলছেন, ধ’র্ষকদের শা’স্তি মৃ’ত্যুদ’ণ্ড হলে সমাজ থেকে কিছুটা হলেও অ’পরাধ কমে আসবে।

দেশজুড়ে বার বারই না’রীর প্রতি সহিং’সতার প্র’তিবাদে উঠে এসেছে ধ’র্ষকের সর্বোচ্চ সাজা ফাঁ’সির দাবি। সিলেটে এমসি কলেজে সংঘবদ্ধ ধ’র্ষণ ও নোয়াখালীতে গৃহবধু নি’র্যাতনের পর সে দাবি আরো জো’রদার হয়েছে।

সাধারণ মানুষের দাবির স’ঙ্গে সুর মিলিয়ে রাস্তায় নেমেছেন ক্ষ’মতাসীন দলের বিভিন্ন অ’ঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরাও। এরই মধ্যে মঙ্গলবার আইনমন্ত্রী সময় সংবাদকে জানান, জনগণের দাবি সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করছে স’রকার।

আইনজীবীরা বলেন, যাবজ্জীবন সাজার মেয়াদ শেষ হলে জে’ল থেকে বেরিয়ে অনেক সময় একই অ’পরাধে আবারও জড়ায় অ’পরাধীরা। তাই মৃ’ত্যুদ’ণ্ড অ’পরাধের মাত্রা কিছুটা হলেও কমাবে।

দ্রু’ত ধ’র্ষণের সাজা ফাঁ’সির আইন পাশের পাশাপাশি আলাদা ট্রাইব্যুনাল গঠনের দাবি তাদের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here