প্লেনের টিকে’টের দাবিতে আন্দোলনরত সৌদি প্রবাসীদের বিশৃঙ্খলা না করার অনুরোধ জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। এছাড়া এয়ালাইন্স জটিলতায় বাংলাদেশি সৌদি প্রবাসীদের সেখানে না যেতে পারার ব্যাপারে সৃষ্ট স’মস্যা সমাধানে দুই থেকে তিন দিন সময় চেয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। আজ বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) পররাষ্ট্র ম’ন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি এ অনুরোধ করেন।

তিনি বলেন, ‘সৌদি আরব যত ফ্লাইট চাইবে বেবিচক তত ফ্লাইট চা’লানোর অনুমতি দেবে। অপরদিকে সৌদ আরব বাংলাদেশ বিমানকে অনুমতি দিলে তারা নিয়মিত ফ্লাইট চালু করবে।’ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘তিন মাস ভিসার মেয়াদ বাড়ানোর জন্য আবেদন করা হয়েছে। স’রকার কাজ করছে। বিমান প্রস্তুত আছে। ল্যান্ডিং পারমিশন দিলে যাদের আগে ডেট আছে তাদের আগে নেয়া হবে।

ধৈ’র্য ধরেন আপনারা। কারণ সৌদি বিশৃঙ্খলা পছন্দ করে না। আন্দোলনকারীদের ভিসা বাতিল করতে পারে। আগেও বাতিল করার ঘ’টনা ঘটেছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘সৌদিতে শ্র’মিক যাওয়া ৬-৭ বছর বন্ধ ছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আবার সেটা চালু করেছেন। তাই বাজে ধারণা যেন সৃষ্টি না হয়। প্রবাসীদের পক্ষ থেকে দরখাস্ত এসেছে। সেটা এক রাজনৈতিক ব্যক্তির কাছ থেকে। প্রবাসীরা তৃতীয় পক্ষ নেবেন না। সরাসরি আসবেন। যাদের যাওয়া অসুবিধা হয়েছে তাদের বিমান ভাড়ার বি’ষয়ে বিবেচনা করা হবে।’

ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেন, ‘সৌদি স’রকার ৫৪ হাজার রো’হিঙ্গাদের নিয়েছিল। প্রথম বলেছিল ৪৬২ জন জে’লে আছে নিয়ে যাও। আমরা যাচাই-বাছাই করবো। যদি বাংলাদেশের নাগরিক হয় নিয়ে আসবো। রো’হিঙ্গাদের ব্যাপারে পররাষ্ট্র স’চিবের নেতৃত্বে কমিটি নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

আলাপ আলোচনা চা’লিয়ে যাচ্ছি। রো’হিঙ্গাদের না আনলে এ দেশ থেকে আর শ্র’মিক না নেয়ার কথা বলেছে সৌদি আরব। তবে এটাকে আমরা হু’মকি মনে করি না।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here