মি’লন এক প্রকার খেলা এই খেলা এক্সপার্ট হতে হলে আপনাকে ভালো ভাবে এই বি’ষয়ে জানতে হবে। জানতে হবে কি ভাবে নিজেকে অধিক সময় মি’লনের কাজে ধরে রাখা যায়।

আমাদের দেশের মানুষ যৌ’ন শিক্ষায় একেবারেই অজ্ঞ তাই এই বি’ষয়ে ভাল ধারনা না থাকায় অহর অহর সু’খের সংসারে বয়ে যাচ্ছে ঝড়! অথচ আপনার একটু সচেতনতাই পারে আপানকে এই থেকে পরিত্রাণ দিত।

আমাদের দেশের বেশির ভাগ পুরু’ষ যৌ’ন মি’লন বলতে যা বুঝেঃ যৌ’ন মি’লন বলতে তারা বুঝে শুধু পুরু’ষের যৌ’না’ঙ্গ না’রীর যৌ’নিতে প্রবেশ করানু এবং বী’র্যপাত গঠিয়ে উঠে যাওয়া। ভু’ল, ভু’ল ভু’ল !

আপনার ধারনা একেবারেই ভু’ল। ভাই আপনার যৌ’ন তৃ’প্তি আছে আপনার বউয়ের কি তৃ’প্তি নাই ? আসলে এই ভু’লটাই করে থাকে আমাদের দেশের প্রায় ৮০% পুরু’ষ।

যৌ’ন মি’লন শুরু করবেন আদর দিয়ে। না’রীর সারা শ’রীরে যৌ’ন উ’ত্তেজনা কাজ করে। তাই প্রথম ১৫-২০ মিনিট তাকে আদর করুন।

আদর করতে করতে তাকে উ’ত্তেজিত করুন। নিজেকে নিজে সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রন করুন হতাশা বা টেনশন নিয়ে যৌ’ন মি’লন করলে খুব দ্রু’ত বী’র্যপাত গঠে যাবে। তাই মাথা ঠান্ডা রেখে যৌ’ন মি’লন করুন।

প্রথম মি’লনে না’রীরা অনেক ভ’য় পেয়ে থাকে এটা সম্পূর্ণ স্বাভাবিক ব্যাপার এবং প্রথম মি’লনে বেশির ভাগ পুরু’ষের ১-২ মিনিট এর মধ্যে বী’র্যপাত ঘটে এও স্বাভাবিক বেপার। তাই এই বি’ষয় গুলা নিয়ে একেবারে চিন্তিত হবে না।

যদি দেখেন সব সময় যৌ’ন মি’লনে টাইম কম পাচ্ছেন তাহলে অবশ্যয় অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিবেন। মনে রাখবেন আপনার যৌ’ন জীবনে (life) অশান্তি মানেই আপনার জীবন (life) তেজপাতা!

বিশেষ মুহূর্তে যৌ’ন দু’র্বলতা, শুক্র স্বল্পতা, মি’লনে সময় সময় কম, লি’ঙ্গের শিথিলতা সহ যে কোন যৌ’ন স’মস্যায় অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং স্থায়ী চিকিৎসা গ্রহন করুন।

যৌ’ন শিক্ষা – জীবনের(life) জন্য শিক্ষা। করতে সাহসী হউন – নিজের এবং অন্য বন্ধুদের ত’থ্য জানায় সহায়তা করুন। যৌ’নতা ছাড়া জীবন (life) অচল – তাই সংসারে সু’খের জন্য যৌ’ন শিক্ষা নিন। জীবনের(life) জন্য যৌ’ন শিক্ষা।

অনেক পুরু’ষেরই যৌ’ন মি’লনের সময় খুব তাড়াতাড়ি বী’র্য (sperm) পতন হয়। কাংখিত সু’খ স্ত্রী (wife) কে দিতে পারেনা। আমাদের আজকের টিউটোরিয়াল টি তাদের জন্য যাদের খুব তাড়াতাড়ি বী’র্য (sperm)পতন হয়।

মি’লনে পুরু’ষের অধিক সময় নেওয়া পুরু’ষত্বের মুল যোগ্যতা হিসাবে গন্য হয়। যেকোন পুরু’ষ ব’য়সেরর সাথে সাথে মি’লনের নানাবিধ উপায় শিখে থাকে। এখানে বলে রাখতে চাই – ২৫ বছরের কম ব’য়সী পুরু’ষ সাধারনত বেশি সময় নিয়ে মি’লন করতে পারেনা। তবে তারা খুব অল্প সময়

ব্যাভধানে পুনরায় উ’ত্তেজিত/উত্ত’প্ত হতে পারে। ২৫ এর পর ব’য়স যত বাড়বে মি’লনে পুরু’ষ তত বেশি সময় নেয়। কিন্তু ব’য়স বৃ’দ্ধির সাথে সাথে পুনরায় জা’গ্রত (ইরিকশান) হওয়ার ব্যাভধানও বাড়তে থাকে।

তাছাড়া এক না’রী কিংবা একপুরু’ষের সাথে বার বার মি’লন করলে যৌ’ন মি’লনে বেশি সময় দেয়া যায় এবং মি’লনে বেশি তৃ’প্তি পাওয়া যায়। কারন স্বরুপ: নিয়মিত মি’লনে একে অপরের শ’রীর এবং ভাললাগা/মন্দলাগা, পছন্দসই আসনভ’ঙ্গি, সু’খ দেয়া নেয়ার পদ্ধতি (system) ইত্যাদি সম্প’র্কে ভালভাবে অবহিত থাকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here