পদ্মা সেতুর ৩১তম স্প্যান বসানে হবে বুধবার (১০ জুন)। এদিন শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে এ সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ থাকবে। ৩১তম স্প্যানটি নৌরুটের চ্যানেলের মধ্যে ২৫ এবং ২৬ নম্বর খুটিতে বসবে। ১১জুন আবহাওয়া অনুকূল নাও থাকতে পারে এমন আ’শঙ্কায় সেতুর স্প্যান বসানোর তারিখ একদিন এগিয়ে আনা হয়েছে বলে সেতু বিভাগ জানিয়েছে।

সোমবার (৮ জুন) বিকেলে পদ্মা সেতু প্রকল্প সূত্র জানায়, মাওয়া কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে ক্রেনের সামনে নিয়ে রাখা হয়েছে ১৫০ মিটার লম্বা ৩১তম স্প্যান। ১০ জুন সকালে এটিই নিয়ে রওয়ানা দেবে তিয়ানহো নামের ক্রেন।

এরপর শুধু মাওয়ার মাটি স্পর্শ করতে বাকি থাকবে ১০টি স্প্যান। ৩১তম স্প্যান বসিয়ে দিয়ে জাজিরা অংশের কাজ শেষ করা হবে। এরপর মুন্সীগঞ্জের মাওয়ার দিকে প্রস্তুত থাকা বাকি ৯টি খূঁটিতে ১০টি স্প্যান বসিয়ে দিলে ৬ কিলোমিটার পেরিয়ে যাবে পদ্মাসেতু।

পদ্মা সেতু প্রকল্প পরিচালক শফিকুল ইসলাম জানান, ক’রোনা পরিস্থিতির মধ্যেও সেতু প্রকল্পের কাজ এগিয়ে যাচ্ছে। মাঝখানে কাজে কিছুটা ধীর গতির থাকলেও এখন প্রকল্পের সবগুলো কাজ একসঙ্গে চলছে। স্বাস্থ্যবিধি অনুযায়ী সর্তকতা অবলম্বন করেছেন তারা। ৩১তম স্প্যান বসিয়ে দিলে বাকি থাকবে কেবল মাওয়ার দিকে ১০টি স্প্যান বসানো।

পদ্মাসেতুর ২০টি স্প্যান শরীয়তপুর অংশে আর ২০টি স্প্যান মুন্সীগঞ্জের মাওয়ার দিকে। মাঝখানে একটি আরেক জে’লা মাদারীপুরের মধ্যে পড়েছে। নদীতে সেতুটি ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার লম্বা হলেও দুই পাড়ে সংযোগ সড়কের সঙ্গে যুক্ত অংশ মিলিয়ে সেতুটি প্রায় সাড়ে ৯ কিলোমিটার।

পদ্মাসেতুর একজন প্রকৌশলী জানান, বাংলাদেশের এখন পর্যন্ত সবচেয়ে দীর্ঘ বঙ্গবন্ধু সেতুতে ৩২টি স্প্যান রয়েছে। অথার্ৎ আরও দুটি স্প্যান বসানোর পর স্প্যানের দিক থেকে যমুনা নদীর ও’পর বঙ্গবন্ধু সেতুকে ছাড়িয়ে যাবে স্বপ্নের পদ্মাসেতু।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here