শেরপুরের নালিতাবাড়িতে এক আত্মীয়ের জানাজায় অংশ নিতে গিয়ে ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজে’লায় সড়ক দু’র্ঘ’টনার শি’কার হন ৮ জন। মাইক্রাবাস খাদে পড়ে তারা ঘ’টনাস্থলেই মা’রা যান। এসময় আ’হত হয়েছেন ছয়জন।

মঙ্গলবার সকাল পৌনে ৮টার দিকে ফুলপুর-শেরপুর সড়কের বাশাটি নামকস্থানে এ দু’র্ঘ’টনা ঘটে।

নি’হতরা হলেন- গফরগাঁও উপজে’লার আঠারোদানা গ্রামের এলাহি বক্সের স্ত্রী রেজিয়া খাতুন (৭০), একই গ্রামের রতন মিয়ার মে’য়ে রিপা আক্তার (২৫), মশাখালি গ্রামের হাফিজ উদ্দিনের স্ত্রী পারুল বেগম (৪৫) ও মৃ’ত আইয়ুব আলীর ছেলে শামসুল হক (৫৫), ভালুকা উপজে’লার বিরুনিয়া গ্রামের শাহজাহান মিয়ার স্ত্রী বেগম (৩০), তারাকান্দা উপজে’লার দাদরা গ্রামের নবী হোসেন (৩০), ভালুকা উপজে’লার শাহজাহানের শি’শু কন্যা বুলবুলি (৫) ও সামমুন শেখের স্ত্রী মি’লন (৬০)।

আ’হতরা হলেন- গফরগাঁও উপজে’লার আঠারোদানা গ্রামের এলাহি বক্সের ছেলে রতন মিয়া (৫৩), মশাখালী গ্রামের মৃ’ত উসমানের ছেলে হাবি (৫৫), ভালুকা উপজে’লার কাইচান গ্রামের মি’লনের ছেলে মিজান (২৮) ও রাজৈ গ্রামের আবুল কালামের ছেলে সোহরাব (২৮)।

স্বজনরা জানান, শেরপুর জে’লার নালিতাবাড়ি উপজে’লার বারোমারিতে হাসান আলী নামে এক আত্মীয়ের জানাজায় অংশ নেয়ার উদ্দেশে সকালে মাইক্রোবাসে রওনা দেন চালকসহ ১৪ জন।

সকাল পৌনে ৮টার দিকে ময়মনসিংহ-শেরপুর সড়কের ফুলপুর উপজে’লার বাসাটি নামকস্থানে মাইক্রোবাসটি নি’য়ন্ত্রণ হা’রিয়ে রাস্তার পাশে একটি পুকুরে পড়ে যায়।

খবর পেয়ে ফুলপুর থানা পু’লিশ ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজন স্থানীয়দের সহযোগিতায় এক শি’শু, পাঁচজন না’রী ও দুই পুরু’ষ ৮ জনের লা’শ উ’দ্ধার করে। এ সময়

ছয়জনকে জীবিত উ’দ্ধার করে ফুলপুর স্বা’স্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

ফুলপুর থানার ওসি ইমারত হোসেন গাজী জানান, ময়মনসিংহের ভালুকা থেকে শেরপুর জে’লার নালিতাবাড়ি উপজে’লার বারোমারিতে যাওয়ার পথে সকাল পৌনে ৮টার দিকে ময়মনসিংহ-শেরপুর সড়কের ফুলপুর উপজে’লার বাসাটি নামকস্থানে এ দু’র্ঘ’টনা ঘটে।

মাইক্রোবাসটি নি’য়ন্ত্রণ হা’রিয়ে একটি গাছের স’ঙ্গে ধাক্কা খেয়ে পুকুরে পড়ে ডুবে যায়। এতে ঘ’টনাস্থলেই আটজন নি’হত হয়। মাইক্রোবাসটিতে চালকসহ ১৪ যাত্রী ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here