নিউজ ডেস্ক-পুরু’ষদের মতো ম’হিলারাও কিন্তু সমান যৌ’ন তৃ’প্তি পেতে চান। পরিতৃ’প্তি পেতে অনেক সিঙ্গল ম’হিলাই স্বমেহন বা হ’স্তমৈ’থুন করেন। যদিও প্রকাশ্যে সে কথা মানতে চান না। কারণ, না’রীশ’রীর নিয়ে খোলামেলা আলোচনা এখনও আমাদের সমাজে ট্যাবু।

অনেকেই জানেন না, কীভাবে এই শা’রীরিক চা’হিদা মেটান সিঙ্গল ম’হিলারা । পলিগ্যামি নয়, বরং ম’হিলাদের একাংশের প্রথম পছন্দ কিন্তু এই হ’স্তমৈ’থুনই। এতে যেমন শ’রীরী সু’খ পাওয়া যায়, তেমনই লোকলজ্জার ভ’য়ও নেই। এই প্রতিবেদনে জেনে নিন সিঙ্গল ম’হিলারা কীভাবে হ’স্তমৈ’থুনের সু’খ পান।

১. Lube-এর ব্যবহার এখন শহুরে ম’হিলাদের মধ্যে প্রায়শই দেখা যাই। এটি একধরনের সুগন্ধযুক্ত লিউবিক্রেন্ট। একটি অনলাইন সে’ক্স টয়-এর ওয়েবসাইটের ত’থ্য মোতাবেক, গো’পনা’ঙ্গ থেকে উপযুক্ত পিচ্ছিল পদার্থ না বেরোলে লিউব ব্যবহারে সম্পূর্ণ নিরাপদ ও আরাম’দায়ক।

বাজারে অনেকরকম দাম ও গুণমানের লিউব পাওয়া যায়। ই-কমার্স সাইট আমাজনে ৩০০ টাকা থেকে শুরু হচ্ছে দাম। লিউব ব্যবহার করে ভায়ব্রেটর ব্যবহার করলে স্বর্গীয় সু’খ পাওয়া যায়, একটি সর্বভারতীয় সমীক্ষায় এমনটাই জানিয়েছেন বেশ কয়েকজন ম’হিলা।

২. হ’স্তমৈ’থুনেই অন্যরকম সু’খ পেতে বেডরুমের ‘কমফোর্ট জোন’ থেকে বেরিয়ে আসতে হবে, বলছেন বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের পরামর্শ, চেষ্টা করুন শাওয়ারের নিচে বা বাথটবে স্বমেহনের সু’খ নিতে। হ্যান্ড শাওয়ারের তীব্র বারিধারাকে ‘অন্যরকম’ কাজে ব্যবহার করে দেখতে ক্ষ’তি কী? সে’ক্স এক্সপার্টরা বলছেন, বা’থরুমে সুগন্ধী, মোমবাতি ব্যবহার করলে স্বমেহনের চ’রম সু’খ অনুভব করতে পারবেন।

৩. হ’স্তমৈ’থুনের মজা পেতে ‘পজিশন’ পালটান। কখনও বুকে ভর দিয়ে, কখনও আবার হেলান দিয়ে স্বমেহনের মজা নিন। ‘ডগি’ স্টাইল কিন্তু একটা দারুন উ’ত্তেজক পজিশন হতে পারে!

৪. প্রথমবারেই থেমে যাওয়ার কারণ নেই। হ্যাঁ, ঠিকই শুনেছেন। মাত্র একবার পরিপূর্ণ মজা পেয়েই থামার কোনও কারণ নেই। পুরু’ষদের মতো মাত্র একবার স্খলনেই শান্ত হয়ে যান না ম’হিলারা। তাঁরা লাগাতার একস’ঙ্গে তিন-চারবারও স্বমেহন করতে পারেন। ট্রাই করে দেখু’নই না!

৫. দু’হাতের পূর্ণ ব্যবহার কিন্তু ম’হিলাদের হ’স্তমৈ’থুনে অত্যন্ত জরুরি। একহাত যখন শ’রীরের নিম্না’ঙ্গে ব্যস্ত থাকবে, তখন আরেক হাত শ’রীরের উর্ধ্বাঙ্গকে উ’ত্তেজিত করতে ব্যবহার করেন অনেক ম’হিলাই।

৬. তাড়াহুড়ো করার দরকার নেই। পরিপূর্ণ মজা পেতে প্রথমেই অত্যন্ত সংবেদনশীল অ’ঙ্গে জো’রে আঙুলের ধাক্কা দিয়ে ফেলবেন না। ধীরে ধীরে সু’খ উপভোগ করুন।

এই প্রতিবেদনের শেষে তো একটি কথাই বলতে হয়, ‘why should boys have all the fun?

সূত্র: সংবাদপ্রতিদিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here