দু’ধ ও কলা একস’ঙ্গে খাওয়া স্বাস্থ্যকর নয়। দু’ধ ও কলা আলাদা আলাদাভাবে পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ খাবার। কিন্তু একস’ঙ্গে খেলে বরং শ’রীরের জন্য মা’রাত্মক ক্ষ’তিকর হতে পারে৷

জেনে নিন দু’ধ কলা একস’ঙ্গে খেলে কী হয়?

১। দু’ধ ও কলা আলাদা দুই ধরনের দুটি খাবার। দু’ধে প্রোটিন, ভিটামিন বি-১২ এবং রিবোফ্লেভিন ও ক্যালসিয়ামের মত খনিজ পদার্থ আছে। প্রতি ১০০ গ্রাম দু’ধে রয়েছে ৪২ ক্যালরি। যদিও ‘সুষম খাদ্য দু’ধ’ কথাটি এখন যথার্থ মনে হয় না কারণ দু’ধে ভিটামিন সি, হজম আঁশ নেই। সেই স’ঙ্গে কার্বোহাইড্রেটের পরিমাণও কম।

২। অন্যদিকে, কলায় প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন বি-৬, ম্যাঙ্গানিজ, ভিটামিন সি, পাচক আঁশ, পটাশিয়াম এবং বায়োটিন আছে। প্রতি ১০০ গ্রাম কলায় ৮৯ ক্যালরি থাকে। কলা আমাদের পাকস্থলিকে ভারী করে রাখে এবং আমাদেরকে অনেকক্ষণ ‘পেট ভরা’ অনুভূতি দেয়।

৩। অনেকেই মনে করেন কলা ও দু’ধ একস’ঙ্গে খাওয়া ভাল। কিন্তু গবে’ষণা বলছে এমনটা ঠিক না। গবেষকদের মতে, দু’ধ ও কলা একস’ঙ্গে খেলে তা যে শুধু আমাদের হজম প্রক্রিয়ায় সমস্যা করে তাই নয়। তা আমাদের সাইনাসের শোষনকেও ব্যাহত করে। এটা আমাদের সাইনাসের সমস্যা সৃষ্টি করে এবং অ্যালার্জির কারণও হতে পারে। তাই

৪। অনেকে দু’ধ ও কলা একস’ঙ্গে খাওয়া অনেকেই সমর্থন করলেও দু’ধ-কলা একস’ঙ্গে খেলে আমাদের বমি বমি ভাব আনতে পারে। এমনকী তা আমাশার কারণও হতে পারে।

৫। আয়ুর্বেদিক শাস্ত্রেও দু’ধ ও কলা একত্রে খাওয়ার নেতিবাচক প্রভাবের কথা বলা হয়েছে। দু’ধ ও কলা একঙ্গে খেলে আমাদের দে’হে টক্সিফিকেশন হতে পারে যা দেশের স্বাভাবিক কাজে বা’ধা দেয়। সেই স’ঙ্গে দু’ধ ও কলা একস’ঙ্গে খেলে তা আমাদের মধ্যে গু’রুতর হতাশা তৈরি করতে পারে এবং আমাদের মস্তিষ্কের কার্যক্ষ’মতা কমিয়ে দিতে পারে।

তাই গবেষকরা বলছেন দু’ধ ও কলা একস’ঙ্গে খাওয়া যাবে না। যদি আপনি কোনো শা’রীরিক অনুশীলনের আগে বা পরে দু’ধ-কলা খেতে চান তাহলে দু’ধ খাবার অন্তত ২০ মিনিট পর কলা খেতে পারেন। আর যদি দুগ্ধজাত কোনও খাবারের স’ঙ্গে কলা খেতে চান তবে দই এর স’ঙ্গে খেতে পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here