ফুটবল ক্লিনিক উদ্বোধ’নের আমন্ত্রণ পেয়ে প্যারাগুয়েতে গিয়েছিলেন ব্রাজিলের কিংবদন্তী ফুটবলার রোনালদিনহো। কিন্তু কে জানতো সেখানে গিয়েই এমন অপ্রীতিকর ঘ’টনার মুখোমুখি হবেন। প্রতিবেশী দেশটিতে গিয়ে জাল পাসপোর্টের কারণে বিড়ম্বনায় পড়েন ব্রাজিলের এক সময়ের এই তারকা ফুটবলার।

ভাই রবার্তোর স’ঙ্গে জাল পাসপোর্ট নিয়ে প্যারাগুয়ে ভ্রমণের দায়ে গত মার্চে গ্রে’প্তার হয়েছিলেন রোনালদিনহো। সেখানেই দীর্ঘ একমাস জে’লে আ’টকে ছিলেন ব্রাজিলের কিংবদন্তি এই ফুটবলার। পরে জে’ল থেকে বের হলেও বিলাসবহুল হোটেলে ব’ন্দী জীবন কা’টাতে হচ্ছিল বার্সেলোনা-এসি মিলানের সাবেক তারকা ফুটবলারকে।

দেখতে দেখতে কে’টে গেছে পাঁচ মাস। অবশেষে পালমারো’গা হোটেলের ব’ন্দী জীবন থেকে মুক্তি মিলছে রোনালদিনহোর। স্প্যানিশ দৈনিক মার্কার খবর, তার আইনজীবীরা এ মাসেই তাকে মুক্ত করার চেষ্টা করছেন।

জানা গেছে, রোনালদিনহোর মা’মলার শতকরা প্রায় ৯০ ভাগই নিষ্পত্তি হয়েছে। যদিও এই মা’মলায় সংশ্লিষ্ট অন্তত ২০ জনের বি’রুদ্ধে ত’দন্ত চলবে আগামী নভেম্বর পর্যন্ত। আশা করা হচ্ছে আইনজীবীরা রোনালদিনহো ও তার ভাইয়ের জা’মিনের ব্যবস্থা করতে চলেছেন। তবে মুক্তি মিলতে পারে কঠিন শর্তসাপেক্ষে।

মুক্তির জন্য গুণতে হবে বড় অঙ্কের জরিমানা। রোনালদিনহোকে ৯০ হাজার ডলার এবং রবার্তোকে ১ লাখ ১০ হাজার ডলার জরিমানা দিতে হবে। এছাড়া বিচারকের কাছে হাজিরাও দিতে হবে প্রতিমাসে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here