ভাত খাওয়ার পর অনেকগুলো ভু’ল কাজ আমরা নিজের অজান্তে করে থাকি। এই ভু’ল কাজগুলো থেকে আমাদের রক্ষা পেতে হলে নিচের পরামর্শগুলো মেনে চলতে হবে।

১. খাবারের পর অনেকেই ফল খান, এটি করা যাবে না। কেননা এতে গ্যাস হয়। দুই/এক ঘণ্টা পর খেলে ভালো। ২. খাওয়ার পর সবচেয়ে ক্ষ’তিকর বি’ষয়গুলোর একটি স’ঙ্গে স’ঙ্গে সিগারেট খাওয়া। এতে ১০ গুণ ক্ষ’তি বেশি হয় ।

৩. খাবার গ্রহণের পরপরই স্নান করবেন না। কারণ খাওয়ার পরপরই স্নান করলে শ’রীরের র’ক্ত সঞ্চালন মাত্রা বেড়ে যায়। এর ফলে পাকস্থলির চারপাশের র’ক্তের পরিমাণ বেড়ে যায়। যা পরিপাকতন্ত্রকে দু’র্বল করতে পারে। ফলে খাবার হজমের স্বাভাবিক সময়কে ধীরগতি করে দেয়।

৪. অনেকে দেখা যায় খাবার গ্রহণের সময় বা পরপরই কোমড়ের বেল্ট কিংবা কাপড় ঢিলা করে দেয়। এটা ঠিক নয়। কারণ কোম’রের

বেল্ট বা কাপড় ঢিলা করলে খুব সহজেই ইন্টেসটাইন (পাকস্থলি) থেকে রেক্টাম (ম’লদ্বার) পর্যন্ত খাদ্যনালীর নিম্নাংশ বেঁকে যেতে পারে বা পেঁ’চিয়ে যেতে পারে বা ব্লক হয়ে যেতে পারে। এ সমস্যাকে ইন্টেসটাইনাল অবস্ট্রাকশন বলে।

৫. খাবার পরপরই ব্যয়াম করা ঠিক নয়। ৬. ভাত খাওয়ার পরপরই ঘুমিয়ে পড়া খুবই খা’রাপ অভ্যাস। এর ফলে শ’রীরে মেদ জমে যায়। ৭. খাবার পর অনেকেই হাঁটা শুরু করে দেন। খাবার স’ঙ্গে স’ঙ্গেই হাঁটা নয়। কিছুক্ষণ পর থেকে হাঁটলে ভালো।

৮. খাবার পরেই অনেকে চা খান। এটি একেবারেই ঠিক নয়। চায়ের টেনিক এসিড খাদ্যের প্রোটিনকে ১০০ গুণ বাড়িয়ে তোলে। তাই একটু অপেক্ষার পর চা পান মঙ্গলজনক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here